জনমেজয় কহিলেন, ‘মহর্ষে, আপনি কহিলেন বিংশ শতকের অন্তিম ভাগে সফটওয়্যার ইঞ্জিনীয়ার নামক এক অদ্ভুত জীবের প্রাদুর্ভাব হইবে। ইহারা পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করিয়া কী করিবে তা জানিতে বড় কৌতূহল জন্মাইতেছে।’
বৈশম্পায়ন কহিলেন, ‘হে নরবর, আমি এক্ষণে সেই বিচিত্রবুদ্ধি, স্বার্থপর, পলায়নকুশলী সফট্ওয়্যার ইঞ্জিনীয়ারদের আখ্যাত করিব। আপনি শ্রবণ করুন। বর্ণনার সুবিধার্থে আমি ইহাদের এক্ষণ হইতে সফো বলিয়াই উল্লেখ করিব।’
‘যাহারা কর্মক্ষেত্রে প্রভাতে কফি পান করিবে, অপরাহ্নে চ্যাট করিবে এবং সায়াহ্নে ঊর্দ্ধতনকে গালিদানপূর্বক আপনার কর্ম সম্পাদন করিবে, তাহারাই সফো। যাহারা শৈশব কনভেন্ট স্কুলে, যৌবন ইঞ্জিনীয়ারিং কলেজে এবং অকালবার্ধক্য আপিসে অতিবাহিত করিবে, তাহারাই সফো।’
‘কর্মক্ষেত্রে ইহাদের প্রভুরা ইহাদিগকে পিঞ্জরসদৃশ স্থানে বন্দী করিয়া রাখিবেন। সেই স্থানের নাম …