ভ্রমন কাহিনী

ঢাকার পাশে ধলেশ্বরীর সবুজ পানির রাজ্যে

ধলেশ্বরী নদী বাংলাদেশের উত্তর-কেন্দ্রীয় অঞ্চলের টাঙ্গাইল জেলা, মানিকগঞ্জ জেলা, ঢাকা জেলা নারায়ণগঞ্জ জেলা এবং মুন্সীগঞ্জ জেলার একটি নদী। নদীটির দৈর্ঘ্য ২৯২ কিলোমিটার এবং এটি যমুনা নদীর একটি শাখা। টাঙ্গাইল জেলার উত্তর পশ্চিম প্রান্তে যমুনা নদী হতে ধলেশ্বরীর সূচনা। এটি এর পর দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায় – উত্তরের অংশটি ধলেশ্বরী আর দক্ষিণের অংশটি কালীগঙ্গা নামে প্রবাহিত হয়। এই দুইটি শাখা নদী মানিকগঞ্জ জেলার কাছে মিলিত হয়, এবং সম্মিলিত এই ধারাটি ধলেশ্বরী নামে প্রবাহিত হয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলার কাছে শীতলক্ষা নদীর সাথে মিলিত হয়ে পরবর্তীকালে মেঘনা নদীতে পতিত হয়।

সহজে কিভাবে ঘুরতে যেতে পারেন এবং আমরা যেভাবে গিয়েছিলাম সেটাই বলছি আপনাদের।

সরাসরি মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড চলে আসবেন তারপর ১০ টাকা রিকশাভাড়া দিয়ে আসবেন আটি বাজার বাসস্ট্যান্ডে এখানে এসে যেকোন সিএনজিকে বললেই হবে সৈয়দপুর যাবো (রামেরকান্দার পরে সৈয়দপুর)। ৫০ টাকা নিবে জনপ্রতি। আপনাকে সিএনজি রাস্তার মোড়ে নামিয়ে দিবে। ১ মিনিট হাটলেই নৌকার ঘাট দেখতে পাবেন যে কাউকে বললেই দেখিয়ে দিবে। এখানে এসে একটি নৌকা ঠিক করবেন। একা যাবেন না, কমপক্ষে ৫-১০ জন নিয়ে যাবেন। নৌকা ভাড়া তুলনামূলক কম। মোটামুটি সারাদিনের জন্য ১০০০-১৫০০ টাকায় জোগাড় করে ফেলতে পারবেন। জনপ্রতি খরচ ধরলাম ১৫০ টাকা।

মাঝিকে বলতে পারেন পারাগ্রামের দিকে নৌকা ছাড়তে। পথের মধ্যে অনেক সুন্দর সুন্দর জায়গা পাবেন সেখানে থামাতে পারেন এবং গোসল করতে পারেন। পারাগ্রামের পরেও আরো সুন্দর সুন্দর জায়গায় আছে সেদিক থেকেও ঘুরে আসতে পারেন। দুপুরে যেকোন একটা বাজারে থামিয়ে দুপুরের খাবার খেয়ে নিবেন। সর্বোচ্চ ১০০ টাকা লাগবে। গ্রামের মাটির চুলায় রান্না করা হোটেল খুজে পেলে তো খুবই ভালো। খাবার খেয়ে অনেক স্বাদ পাবেন। দুপুরের পরে আবার সৈয়দপুর এর দিকে রওনা দিবেন। অবশ্যই সন্ধ্যা পার করবেন নৌকার মধ্যে। যদি পূণিমা থাকে তাহলে বিশাল এক চাঁদ উপভোগ করে আসতে পারবেন আর বৃষ্টি হলে তো ষোল কলা পূর্ণ। সৈয়দপুর থেকে সিএনজি করে আবার মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড চলে আসবেন ৫০ টাকা লাগবে।

সর্বমোট খরচঃ ১০+৫০+১৫০+১০০+৫০=৩৬০ টাকা।

ভ্রমন সংক্রান্ত যেকোন প্রশ্ন / ইনফরমেশন লাগলে আমাকে ফেসবুকে নক করতে পারেন। অথবা, আমার ফেসবুক ট্রাভেল গ্রুপ “ছুটি ট্রাভেল গ্রুপ” এ পোস্ট দিতে পারেন। যতদ্রুত সম্ভব হেল্প করার চেষ্টা করবো। 

মন্তব্য করতে ভুলবেন না
TAGS
মেহেদী হাসান
ঢাকা, বাংলাদেশ

হ্যা, এটাই আমি মেহেদী! এতক্ষণে বুঝে যাওয়ার কথা আমি একজন শখের ট্রাভেলার। পেশায় সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ার। আমার জীবনের ষোল আনাই শখ। যেমন, সব ধরনের শখের মতো এই ব্লগটিও শখের। এটি আমার যাযাবর জীবনের ডায়েরী!

লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

পাওয়ার্ড বাই ধ্রুবহোস্ট

জয়েন করুন ছুটি ট্রাভেলস’এ

Instagram
  • Instagram Image
  • Instagram Image
  • Instagram Image
  • Instagram Image
  • #CoxsBazar
  • Instagram Image
error: Content is protected !!