Tag Archives: প্রজন্মে এই হলো অবস্থা !

প্রজন্মে এই হলো অবস্থা !

প্রথম যখন আসি তখন চলতি টপিক এর কাজটা কি সেটাও জানতাম না। রেজিস্ট্রেশন করে কিছুদিন গুতাগুতি করে হারাই যাই। তারপরে আবার যখন প্রজন্মে ফিরে আসি তখন মোটামুটি ১ বছর পার এবং ভালো ভাবেই ফোরামিং করার ইচ্ছা হলো আমার। কিন্তু রাজনৈতিক বিভাগের কল্যানে মোটামুটি ছুডুখাডু আইক্কাঅলা বাশ খাইলাম। তারপর নানা গুনীজনের পরামর্শে এইখানে যাওয়া বন্ধ কইরা দেই। নিউট্রাল+বিশিষ্ট জায়গাগুলাতে চলাচল শুরু করি। এই হলো আমার অবস্থা।

গত কিছুদিন আগে কর্ম খালি আছে বিভাগে প্রথম প্রবেশ আমার। এইটাও রাজনৈতিক বিভাগের সিন্ডিকেট মুক্ত কিনা এটা আগে চিন্তা করা উচিত ছিল আমার। কিন্তু চিন্তা না করেই আর্টিকেল রাইটার প্রয়োজন টপিক টা ওপেন করি। তার পরদিন বেশ কয়েকজনের সারা পেলাম। ভালোই লাগলো।

আমার একজন ক্লাইন্ট সে নিজে আর্টিকেল রাইটার। সে চাচ্ছে অনলাইন সার্ভিস দিবে নিজের এজেন্সি করে। আর ওয়েবসাইটি ডেভলপ এবং মেইনট্যানেন্স আমি ই করি তাই সে আমাকে দায়িত্ত দেয় কিছু প্রফেশনাল রাইটার খুজে দেয়ার। আমি তাই অন্য কান্ট্রিতে(অনলাইনে)  না খুজে নিজের দেশের লোকেদের জব দেয়ার জন্য খুজতে থাকি। সেই জন্যই আসলে প্রজন্মে টপিক টি খুলেছিলাম।

 অনেকের আগ্রহ পেলেও কয়েকজন কে দেখলাম আতে ঘা লাগলে মানুষ যেমন করে সেভাবে পিছে লেগে রইলো। আমার ওডেস্ক প্রোফাইল বের করে , আমি কয় ডলার রেটে কাজ করি , আমার ওভারভিউ তে মস্তবড় গ্রামার ভুল সেটা নিয়ে তামাশা করে, তারা অনেক বড় ওডেস্কার , আর তেনারা যার তার কাজ করে না সেটা ও ইঙ্গিতে জানায় দেয়। 

এসব ব্যাপার গুলাকে আমি নিচু মন মানসিকতার পরিচয় বলবো না অন্য কিছু বলবো বুজতেছিনা। মডুদের নজরদারীর কারনে এরকম হয়তো আরো অনেক ঘটনা ঘটে যা মুছে দেওয়া হয়। তাই মানুষ তাদের সম্পর্কে জানতে ও পারে না। আমার এই লেখার উদ্দেশ্য তাদের পরিচয় ফাস করা নয়।

মেইল থেকে ২ টা স্ক্রীনশট শেয়ার করিঃ

প্রজন্ম ফোরাম

প্রজন্ম ফোরাম

 

আর দেয়া সম্ভব হলো না। খুব হিজিবিজি ভাবে আছে। কার কোট কোনটা বুঝতে সমস্যা হবে তাই আর দিলাম না।

যাই হোক ভাই আপনাদের দুজনকে বলি ফোরামের পরিবেশ ঠিক রাখেন। আপনারা ৭/৮ হাজার পোস্ট কইরা নিজেদের নেতা ভাইবেন না। এটা ও মনে কইরেন না যে নিক এ “ছোট” শব্দ শব্দটা উল্লেখ্য আছে তাই আমরা আসলেই ছোট। আপনি অনেক ইংলিশ জানেন সে সম্পর্কে আমি জানি। আর একজন কম জানে তাই তাকে ইনসাল্ট করাটা অসুস্থ মানসিকতার পরিচয়। জ্ঞানেই বড় না হয়ে মনে ও একটু বড় হোন। সিন্ডিকেট করে নতুনদের হয়রানী করে আপনাদের কি খুব শান্তি লাগে নাকি ? যদিও আমি নতুন না। তবে আমি মনে হয় বারা ভাতে পা দিয়ে ফেলেছি। আপনাদের সম্পর্কে যা ধারনা ছিল তা সব ভেঙ্গে দিলেন। তাতে অবশ্য অনেক ভালো হলো। ভবিষৎ এ কাটা ভেঙ্গে চলতে পারবো। ভালো থাকবেন। 

“দৃষ্টিকটু , খোচা মারা কথা আর অপরের পার্সোনাল জিনিস ঘাটা থেকে বিরত থাকুন”, দিন দিন টপিক কমতেছে , ইউজার ইন্টারএক্টিভিটি কমতেছে। সবাই মোটামুটি বিরক্ত। এ ধরনের বিচ্ছিন্ন ঘটনা গুলোই সে জন্য দায়ী বলে আমি মনে করি। এসব ঘটনা একজন ফোরামিককে ফোরামে আসতে যথেষ্ট পরিমান নিরুৎসাহিত করে।