Tag Archives: ড্যাফোডিলের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হতে গেলে অনলাইন আর্নিং করতেই হবে কিন্তু দাদা !

অনলাইন আর্নিং নিয়ে কর্মশালা হবে। নামটা শুনলেই বমি আসে। এই ধরনের কর্মশালা করার হচ্ছে অথচ এখন পর্যন্ত আমাদের একটাও প্রোগ্রামিং নিয়ে কিছু হলো না। অনলাইন আর্নিং শুনলেই মাতামারি শুরু সবার।

এর খারাপ দিক গুলো কেউ ভাবে না .. সবাই কি করে html/css (নামে ওয়েব ডেভলপিং ), SEO (যা কখনোই সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার’রা করে না), Photoshop/Illustrator (গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে গেলে তো ৬ মাস কোর্স করলেই হয়, ৪ বছর ড্যাফোডিলে কি?), Adsense/ Affiliate (মনে হয় ১০ হাজার ট্রেনিং সেন্টার আর ৮/১০ লাখ ওয়েবসাইট আছে এগুলা শেখার জন্য)। marketing/ data entry / Media Marketing ইত্যাদি নানা কিছু আছে ওগুলার কথা আর বললাম না।

আকাশে বাতাসে ভাসতেছে ডিপার্টমেন্ট এর ফান্ড দরকার। আমরা কি টাকা কম দেই ভার্সিটিতে যে এইসব নামে আর্নিং কর্মশালা করে ২০/৩০ হাজার যোগাড় করতে হবে? ডিপার্টমেন্ট এর উন্নয়ন ফি কি আমরা দেই না সেমিঃ রেজিস্ট্রেশন এর সময়? ভার্সিটির এর এদের জন্য কোন বাজেট নাই ?

প্রোগ্রামিং করে তো ১৫ দিনে ইনভেস্ট ছাড়া ডলার কামাই করা যায় না তাই প্রোগ্রামিং নিয়ে কিছু করা (ক্লাব, প্রফেশনালস মিট, সেমিনার, ওয়ার্কশপ, ইন্ডাস্ট্রি ট্যুর) দরকার নাই আমাদের। আমাদের মোটিভেট করবে দূরে থাক যেভাবে পরোক্ষভাবে সবাই ডিমোটিভেটেড হচ্ছে সেটা আমাদের কোথায় নিয়ে যাবে তা ভাবলেই শিউরে উঠি। আমার কি ঠেকা এসব নিয়ে বলার !!!

এখন শুধু অপেক্ষা সবাই কবে এদের চিনবে !!

সমস্যা আর সমাধানের পথ ! – ১

টিচার’রা মার্ক’স এর ভয় দেখায়, কি হাস্যকর।
তাদের কাছ থেকে কি প্রত্যাশা করবো আমরা !!!

– আমার মনে হয় একটা টিচার’স ফোরাম/ গ্রুপ করা উচিত। যেখানে আমাদের মতো গরু স্টুডেন্টদের পাশাপাশি আমাদের বুদ্ধিমান টিচারা’ও যুক্ত থাকবেন। আমাদের চাওয়া-পাওয়া/অভিযোগ শুনবেন এবং তা নিয়ে আলোচনা করবেন। যদি তাদের সেই সময়টুকু হাতে থাকে। না থাকলে আর কি করা !! তাদের তো আর সরাসরি কিছু বলা যায় না, কিছু এমন ঘটনা ঘটে যা না বলেও থাকা যায় না।

তবে এভাবে একটি ডিপার্টমেন্ট চলতে পারেনা। এটা একটা প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি তার মানে কি এই যে আমাদের যা খাওয়ানো হবে আমরা তাই খাবো। একবেলা খেতে না দিলে না খেয়ে থাকবো ?

যেকোন সমস্যা সমাধানের জন্য তাদের কি একটাই সমাধান ? – “এটা আমাদের শুরু , আস্তে আস্তে আমরা অনেক কিছু করবো”।

চলবে ……..