ডায়েরীর পাতা থেকে – ১

অনেকদিন পর সকাল বেলা বের হলাম। ঝিড়ঝিড়ে বৃষ্টিতে হাটাহাটি করলাম। এইবারের আষাঢ় যেন সত্যিকারের আষাঢ় মাস। ১ তারিখ থেকে নিয়মিত বৃষ্টি হচ্ছে। আমি ও নিয়মিত ভিজেই চলেছি। অনেক দিন আগের বলা কিছু কথা আবার ও মনে পরে গেল।

সারারাত বিভিন্ন খাবারের ছবি দেখে অনেক খিদা লাগছিল। সকাল বেলা ভূনা খিচুড়ি খাওয়া আমার আবার অনেকদিনের শখ। কিন্তু ৩/৪ টা রেস্টুরেন্ট খুজেও তা পেলাম না। অবশেষে মনের দুঃখে পরোটা আর ডাল ই খেলাম। কিন্তু একেবারেই খেতে পারলাম না। পরে জেদ চেপে গেল যে আজ খিচুড়ি খাবো ই। ভাগ্য এইবার নেক্সট হোটেলটিতেই আমার জন্য খিচুড়ি মিলাই দিল। তবে পরোটা খাওয়ার কারনে খুব বেশি আয়েশ করে খেতে পারিনি।

গতকাল মীমের সাথে দেখা করে আসলাম। মেয়েটা খুব করে ধরছিল দেখা করতে হবে। আমার আবার কেউ দেখা  (মেয়ে) করতে বললে দৌড়ে পালাতে ইচ্ছা করে। ঘুম থেকে উঠে ঘন্টা খানেক গল্প করে আসলাম। আর একজন তো হাতে একবাটি নুডুলস ধরাই দিল। বাসায় এসে মামা আর (আমার রুমমেট) সবাই মিলে খেলাম।

আব্বু অসুস্থ বেশ কয়েকদিন ধরে। বয়স হওয়া সত্তে ও এখন ও হাড়ভাঙ্গা খাটুনি খাটে। কিছু বললেও শুনে না। কি যে করি !! কিছুদিন পর সব দায়িত্ত নিজেকে নিতে হবে। বাবাকে আর কত !!!

Leave a Reply