Category Archives: Fav Poems

অম্বু

অম্বু ,
২১ অথবা ২২ এর এক তরুণী ..
হঠাৎ তার চোখ দুটো মনে পড়ে গেল সেদিন
নিকষ কালো নয়ন তারা
যেন হারিয়ে যাবার প্ররোচনা দেয় প্রতি নিয়ত
হারিয়ে যেতে হয় নিজের অজান্তেই
ভাবে মন নামক নিয়ন্ত্রনহীন এক স্বত্ত্বা

এক সমুদ্র জলে ভরা তার চোখ যেন
অপলক তাকিয়ে অদৃশ্য হাতছানি দিয়ে
ডেকে নিয়ে যায় গভীর থেকে গভীরে
হৃদয়ের দুকূলে আছড়ে পড়ে যেন
একটা কিছু জানান দিয়ে যায়
হীমশীতল হাহাকারের কোন অতৃপ্ত ঢেউ …

অসঙ্গায়িত ভাবনা

ভাবনা গুলো উচু নিচু … বৈধ বা অবৈধ,
চিন্তা গুলো ধূসর হয়ে মরচে পরে শূণ্যতায়,
নিউরন গুলো আর কেঁপে উঠে না ক্ষনে ক্ষনে,
কোলাহলের ভিড়ে আমি তাই নির্জিব নিঃসঙ্গ

স্বত্বাটুকু ছেড়ে দিলাম গহীন বনে …
দিন-মাসের হিসাব তাই থাকেনা মনে,
মূহুর্তগুলোর প্রতারণায় থমকে যাওয়া সময়
শরতের আকাশেও কালো ছোপ ফেলে যায় …
ব্যস্ত থাকার আয়োজন গুলোও থমকে যায়
বাস্তবতার নিষ্টুরতায় ..

#N.B : কবিতা দিবস উপলক্ষ্যে।

মানসী –রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

শুধু বিধাতার সৃষ্টি নহ তুমি নারী!
পুরুষ গড়েছে তোরে সৌন্দর্য সঞ্চারি
আপন অন্তর হতে। বসি কবিগণ
সোনার উপমাসূত্রে বুনিছে বসন।
সঁপিয়া তোমার ‘পরে নূতন মহিমা
অমর করেছে শিল্পী তোমার প্রতিমা।
কত বর্ণ, কত গন্ধ, ভূষণ কত-না –
সিন্ধু হতে মুক্তা আসে, খনি হতে সোনা,
বসন্তের বন হতে আসে পুষ্পভার,
চরণ রাঙাতে কীট দেয় প্রাণ তার।
লজ্জা দিয়ে, সজ্জা দিয়ে, দিয়ে আবরণ,
তোমারে দুর্লভ করি করেছে গোপন।
পড়েছে তমার ‘পরে প্রদীপ্ত বাসনা –
অর্ধেক মানবী তুমি, অর্ধেক কল্পনা।

এক মুহুর্তের ভাবনা

আকর্ষন? অনূভূতি?
সবই তো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মূহুর্তের বিশাল এক দ্রবীভূত সংমিশ্রন
সেকারনেই আকর্ষন/অনূভূতি দূর কথা অনেক কষ্টকর হয়
যার সাথে মিলিয়ন মিলিয়ন ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র মুহুর্ত ব্যয় হয় …
তোমার এমন মিলিয়ন মুহুর্ত থেকে একটি আমায় দাও
শতাব্দীর কসম, এ কখনো তোমার দায় হয়ে দাঁড়াবে না,
জানোনা? , সে তো বড়ই একা …
তার সাথে তো আর মিলিয়নের স্রোত নেই …
শক্তি নেই, যে তোমায় আকর্ষনে/অনূভূতিতে বেধে রাখে …

আসমানী প্রেম – নির্মলেন্দু গুণ

নেই তবু যা আছের মতো দেখায়
আমরা তাকে আকাশ বলে ডাকি,
সেই আকাশে যাহারা নাম লেখায়
তাদের ভাগ্যে অনিবার্য ফাঁকি !

জেনেও ভালোবেসেছিলাম তারে ,
ধৈর্য ধরে বিরহ ভার স’বো ;
দিনের আলোয় দেখাবো নিষ্প্রভ
জ্বলবো বলে রাতের অন্ধকারে …

মধ্যেরাতের গল্প

অনুভূতি গুলো যখন ভোতা হয়ে যায়
তখন সব শূন্য লাগে
মনের ভিতর হাহাকার জন্মে
কোন কিছু পাবার ব্যাকুলতায়

যে পেতে অভ্যস্ত নয়
তার পাওয়া জিনিসগুলো ও
সবাই কেড়ে নিয়ে যায়
কুকড়ে খেয়ে ফেলে
মনের ভিতর আবারো হাহাকার জন্মে
কোন কিছু হারাবার আশংকায় !

সময় ফিরে ফিরে আসে
কে বলে সময় একবার গেলে
তা আর ফিরে আসে না !!
খেয়াল রাখুন, আমি সুসময়ের কথা বলছি না।

জন্মের পর জীবনটা শুরুই হয় কান্না দিয়ে
তাহলে কান্না কে কেন এত ভয়?
ও তো হওয়া উচিত সবচে পুরোনো বন্ধু
যে কিনা জন্মের পর থেকেই তোমায় সঙ্গ দিচ্ছে
আর কেউ কি আছে এমন?

তুমি আসবে বলেই

তুমি আসবে বলেই উদাস আমি
পথ খুজে আজো আমি পাইনি …

তুমি আসবে বলেই চোখের কোনে
তোমার ছায়াটা যায়নি …

তুমি আসবে বলেই মনে প্রেম…
বুকের মাঝে ব্যাথা

তুমি আসবে বলেই অসময়ে
মনের মাঝে
কবিতা হলো লেখা … …

আজেবাজে কবিতার স্তুপ থেকে – ১

চারিদিকে পাওনাদারের লেলিহান শিখা।
মোড়ের দোকানদারের হাতে দূরবীক্ষন যন্ত্র
আমি কি আর ও পথ মাড়াই?

গার্লফ্রেন্ডের ডেটিং শিল্পে দিচ্ছি বাগড়া
ঘরে বসে জমাই অলসতার আখড়া।

পাতে শোভা পায় আলু ভর্তা ডাল
মাসটা এত বড় কেন
মাসের পেটে ঢুকেছে লাল মাল।